উক্ত বিদ্যালয়ে কেন পড়বে?

এই বিদ্যালয়ে আপনাদের স্বাগতম

 

প্রিয় অভিভাবক,

আপনাদের সকলকে উক্ত বিদ্যালয়ে স্বাগতম।

এক নজরে উক্ত বিদ্যালয়ের বৈশিষ্ট্যসমূহ ঃ
  • স্কুলের অবস্থান ও সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা।
  • দক্ষ ও অভিজ্ঞ অধ্যক্ষ কর্তৃক পরিচালিত।
  • স্কুল পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক সার্বক্ষণিক তদারকি।
  • সাপ্তাহিক ও মাসিক পরীক্ষার মাধ্যমে যথাযথ মূল্যায়ন।
  • ভর্তি ফি যৌক্তিক ও আপানার সাধ্যের মধ্যে।
  • তরুণ, মেধাবী ও সুশিক্ষিত শিক্ষক-শিক্ষিকা দ্বারা পাঠদান।
  • শ্রেণির পড়া শ্রেণিতে আদায়ের ব্যবস্থা।
  • প্রথম শ্রেণি থেকে কম্পিউটার শিক্ষা বাধ্যতামূলক।
  • সৃজনশীল শিক্ষা পদ্ধতির মাধ্যমে পাঠদান।
  • ইংরেজি ও ধর্মীয় শিক্ষার উপর বিশেষ গুরুত্ব প্রদান।
  • দূর্বল ছাত্র/ছাত্রীদের পাঠদানে বিশেষ গুরুত্ব প্রদান।
মহৎ ও আদর্শ জীবন গঠনে শৃঙ্খলা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নিম্নোক্ত নিয়ম শৃঙ্খলা ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অবশ্য পালণীয়ঃ
  • বন্ধ ব্যতীত প্রতিদিন যথাসময়ে বিদ্যালয়ে আসবো।
  • প্রতিদিন গোসল করে, পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন হয়ে স্কুল ড্রেস পরে জুতা পায়ে দিয়ে বিদ্যালয়ে আসবো।
  • প্রতিদিনের পড়া প্রতিদিন শিখে আসবো।
  • বড়দের সালাম/আদাব দিব, শ্রদ্ধা করব এবং ছোটদের ¯েœহ করবো।
  • শিক্ষকদের সম্মান করব এবং তাঁদের উপদেশ মেনে চলবো।
  • বিষয়ভিত্তিক খাতা, বই ও কলম/পেন্সিল নিয়ে আসবো।
  • নখ, চুল ছোট করবো এবং চুল আঁচড়িয়ে বিদ্যালয়ে আসবো।
  • শ্রেণি শৃঙ্খলা বজায় রাখবো, শ্রেণিকক্ষ ও বিদ্যালয় আঙ্গিনা অপরিচ্ছন্ন/নোংরা করবো না।
  • বিদ্যলয়ের আসবাবপত্র যতœ সহকারে ব্যবহার করবো।
  • বিদ্যালয়ের দেয়ালে ও বেঞ্চে কিছু লিখবো না।
  • অনুমতি না নিয়ে অন্যের কোনো কিছু ব্যবহার করবো না। শ্রেণিকক্ষে/বিদ্যালয়ে কোন কিছু পেলে শিক্ষকের নিকট তা জমা দেবো।
  • প্রতিদিন সমাবেশে অংশগ্রহণ করবো।
  • বিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ও খেলাধূলায় অংশগ্রহণ করবো।
  • ‘ছেলে-মেয়ে সবাই সমান’ তা মেনে চলবো।
  • টয়লেট ব্যবহার করার পর সাবান দিয়ে হাত ধৌত করবো এবং টয়লেট পরিস্কার রাখবো।
  • অপরিচিত লোকের দেয়া কিছু খাবো না এবং তাদের সাথে যাবো না।
  • নামাজের সময় নামাজ পড়বো / প্রার্থনার সময় প্রার্থনা করবো।
  • শ্রেণিপাঠে মনোযোগ দেবো এবং হাতের লেখা সুন্দর করবো।
  • শিক্ষকের অনুমতি না নিয়ে বিদ্যালয় ত্যাগ করবো না।
প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা
  • স্কুলের নির্ধারিত পোশাক পরিধান করা বাধ্যতামূলক। অন্যথায় শ্রেণি কার্যক্রম অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না।
  • নির্দিষ্ট সময়ে নিয়মিত স্কুলে আসা।
  • মিড টার্ম পরীক্ষায় যথাসময়ে অংশগ্রহণ করা।
  • শ্রেণিকক্ষ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা ও আসবাবপত্র সংরক্ষণ করা।
  • স্কুলে অনুপস্থিত থাকলে, অনুপস্থিতি প্রতিবেদন অংশে অভিভাবকের স্বাক্ষরসহ অনুপস্থিতির কারণ লিখে দিতে হবে। অন্যথায় শ্রেণি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না।
  • স্কুলে ডায়েরী নিয়ে আসা ও শ্রেণি পাঠ্যক্রম লিপিবন্ধ করা।
  • প্রতি মাসের বেতন ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে অগ্রিম পরিশোধ করতে হবে।
  • ক্লাস চলাকালীন সময়ে শ্রেণি কক্ষে অভিভাবকের প্রবেশ নিষেধ।
  • প্রতিদিনের পাঠ্যক্রম, স্কুল কার্যক্রম, শিক্ষা কার্যক্রম বা অন্য যে কোন বিষয়ে অভিভাবকগণের অভিযোগ, পরামর্শ বা মতামত স্কুল কার্য দিবসে ছাত্র-ছাত্রীদের স্ব স্ব শ্রেণিতে উপস্থিত থেকে বিষয় শিক্ষক-শিক্ষিকাদের জানাতে পারেন।

 

স্কুল ড্রেসের বিবরণ
ছাত্রঃ ১ম থেকে ২য় শ্রেণি
ছাত্রীঃ ১ম থেকে ২য় শ্রেণি
প্যান্ট খাকি রংয়ের স্বাভাবিক থ্রি কোয়াটার শার্ট প্যান্ট ইন করা থাকবে। স্কার্ট খাকি রংয়ের কোমরে কুচি থাকবে।
ছাত্র ঃ ৩য় থেকে ১০ম শ্রেণি
ছাত্রীঃ ৩য় থেকে ১০ম শ্রেণি
শার্ট স্কাই ব্লু হাফ হাতা প্লেইন শার্ট, সোল্ডার ও পকেটে ঢাকনা থাকবে। কামিজ স্কাই ব্লু হাফ হাতা প্লেইন রুমাল কাট, সাদা বেল্ট, সাদা ক্রস বেল্ট, মাথায় সাদা স্কার্ফ বা ওড়না।
প্যান্ট খাকি রংয়ের স্বাভাবিক ফুল প্যান্ট। শার্ট প্যান্ট ইন করা থাকবে। সেলোয়ার সাদা স্বাভাবিক ডিজাইনের।
সুয়েটার নেভী ব্লু রংয়ের। সুয়েটার নেভী ব্লু রংয়ের (বুক ফাড়া)
জুতা ও মোজা সবার জন্য প্লেইন সাদা রংয়ের। জুতায় অন্য কোন রং এর ডিজাইন থাকতে পারবে না। জুতা ও মোজা সবার জন্য প্লেইন সাদা রংয়ের
    সাজগোজ মেকাপ, লিপস্টিক, কাজল ও গহনা পরিধান নিষিদ্ধ।
প্রতি শিক্ষাবর্ষে নিম্নলিখিত পরীক্ষসমূহ অনুষ্ঠিত হবে।
  • পাঠ শেষে নিয়মত ক্লাস টেষ্ট।
  • সাময়িক পরীক্ষার মাঝে মিড টার্ম পরীক্ষা।
  • প্রথম সাময়িক পরীক্ষা।
  • দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা।
  • চূড়ান্ত মূল্যায়ন / বার্ষিক পরীক্ষা।